moddhopracco

মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো থেকে রেমিটেন্স কমেছে। ২০১৪-১৫ অর্থবছরের তুলনায় ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ৫ দশমিক ৭ শতাংশের মত রেমিটেন্স আহরণ কমে গেছে বলে বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে। 

রেমিট্যান্স সংক্রান্ত কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ২০১৪-১৫ অর্থবছরে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো থেকে রেমিট্যান্স এসেছিল ৯০৭ কোটি ৭২ লাখ মার্কিন ডলার। ৫ দশমিক ৭ শতাংশ কমে ২০১৫-১৬ অর্থবছরে রেমিট্যান্স দেশে এসেছে ৮৫৫ কোটি ৪৯ লাখ ডলার; সংখ্যার হিসেবে যা প্রায় ৫১ কোটি ৭৪ লাখ ডলারের বেশি।

জনশক্তি রপ্তানিতে মন্দাবস্থা, তেলের দরপতনে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর আর্থিক সক্ষমতা হ্রাস, বিভিন্ন দেশ থেকে শ্রমিকের দেশে ফেরত আসা ও দেশে বিনিয়োগের মন্দা পরিস্থিতির কারণেই মধ্যপ্রাচ্য থেকে রেমিট্যান্সের পরিমাণ কমছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। 

মধ্যপ্রাচ্য থেকে রেমিট্যান্স কমে যাওয়া প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. সালেহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘রেমিট্যান্স প্রবাহ কমে যাওয়া বাংলাদেশের অর্থনীতিতে বিরূপ প্রভাব পড়বে। অর্থনীতির সূচকগুলোর মধ্যে একমাত্র রিজার্ভ তথা প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সই শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে।’
 
সালেহ উদ্দিন বলেন, ‘বিশ্ববাজারে তেলের দাম কমায় মধ্যপ্রাচ্যে দেশগুলোতে প্রবাসীদের বেতন ও মজুরি কমে গেছে। অর্থাৎ ইনকাম কমে যাওয়ায় রেমিট্যান্স পাঠানো কমে গেছে। দীর্ঘদিন ধরে জনশক্তি রপ্তানিতে ‘স্থবিরতা’ চলছে। সরকার নানা দেশের সঙ্গে চুক্তি করলেও এর দৃশ্যমান কোনো ফল দেখা যাচ্ছে না।’

মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে ২০১৫-১৬ অর্থবছরে সৌদিআরব থেকে রেমিটেন্স এসেছে ২৯৬ কোটি ১ লাখ মার্কিন ডলার। এছাড়া একই সময়ে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ২৭১ কোটি, কাতার থেকে ৪৩ কোটি, ওমান থেকে ৯১ কোটি, বাহরাইন থেকে ৪৮ কোটি, কুয়েত থেকে ১০৩ কোটি এবং লিবিয়া খেকে ১ কোটি ডলারের কিছু বেশি রেমিট্যান্স দেশে এসেছে। শুধুমাত্র কাতার ছাড়া সবকটি দেশ থেকেই কমেছে রেমিট্যান্সের পরিমাণ।’

অন্যদিকে ইউরোপ আমেরিকার দেশগুলো থেকে রেমিটেন্স আহরণের পরিমাণ উল্লিখিত বছরে আগের বছরের চেয়ে কিছুটা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৩৭ কোটি ৬২ লাখ ডলার। যেখানে ২০১৪-১৫ অর্থবছরে এ অঞ্চলগুলো থেকে রেমিটেন্স এসেছিল ৬২৪ কোটি ৪৫ লাখ ডলার। এ অঞ্চলে বছরজুড়ে সবচেয়ে বেশি রেমিট্যান্স এসেছে যুক্তরাষ্ট থেকে। দেশটি থেকে রেমিট্যান্স এসেছে ২৪১ কোটি ৩৮ লাখ ডলার। এছাড়া মালয়শিয়া থেকে রেমিটেন্স এসেছে ১৩২ কোটি ৪২ লাখ ডলার। 

উল্লেখ্য, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে প্রবাসীরা এক হাজার ৪৯২ কোটি ৬২ লাখ মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ মূল্যের রেমিট্যান্স দেশে পাঠিয়েছেন। যা এর আগের ২০১৪-১৫ অর্থবছরে ছিলো এক হাজার ৫৩১ কোটি ৬৯ লাখ ডলার। সে হিসেবে সদ্যসমাপ্ত অর্থবছরে রেমিট্যান্স কমেছে ৩৯ কোটি ডলার বা ২ দশমিক ৫৫ শতাংশ।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / আ/ম

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা