পোশাক শিল্প

পোশাক শিল্পে অস্থিরতার জন্য জঙ্গিবাদকে দায়ী করেছে কনফেডারেশন অব গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স। একইসঙ্গে এর বিস্তারে অর্থ ও অস্ত্রের যোগদানদাতাদের খুঁজে বের করে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

বুধবার রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির ছোট হল মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সংগঠনের আহ্বায়ক সিরাজুল ইসলাম রনি বলেন, ‘রানা প্লাজার ভয়াবহ ক্ষত শুকাতে না শুকাতে গুলশানে সন্ত্রাসী হামলা পোশাক শ্রমিকদের সবচেয়ে বেশী আতঙ্কিত ও সন্ত্রস্ত করছে। পোশাক শিল্পের ভাবমূর্তিকে বিশ্বব্যাপী ক্ষুন্ন করতে দেশে জঙ্গি হামলা চালানো হচ্ছে। গুলশান হামলায় মৃতদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক ছিলেন পোশাক শিল্পের সঙ্গে যুক্ত। যারা পোশাক ক্রয় সংক্রান্ত কাজে বাংলাদেশ এসেছিলেন।

তিনি আরো বলেন, ‘পোশাক শিল্পের সঙ্গে সরাসরি জড়িত প্রায় ৫০ লক্ষ শ্রমিক এবং পরোক্ষভাবে প্রায় তিন কোটি মানুষ । যদি এ খাত ধ্বংস হয়ে যায় তাহলে দেশের অর্থনীতির চাকা গতি হারাবে, বহু মানুষ বেকার হবে।

সংবাদ সম্মেলন থেকে আগস্ট মাস জুড়ে সারাদেশে গার্মেন্টস শিল্পাঞ্চলে জঙ্গিবাদবিরোধী শ্রমিক সমাবেশের ঘোষণা দেওয়া হয়। আগামী ৫ আগস্ট সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী পোশাক শ্রমিক সমাবেশের ডাক দেওয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আবুল হোসাইন, তপন সাহা, বাহারানে সুলতান বাহার, শহীদুল্লাহ বাদল, মো. রফিক, আসাদ চৌধুরী, আবুল কালাম আজাদ, রোকসানা আক্তার, আরাফাত জাকারিয়া সঞ্চয় প্রমুখ।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / স স

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা