mrkfffdddrr

মিসরের ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট হোসনি মোবারক মুক্তি পেয়েছেন। ক্ষমতাচ্যুত হয়েছিলেন ছয় বছর আগে। তখন একনায়কতন্ত্রের বিরুদ্ধে ফেটে পড়েছিল মিশর। সরকারের দমন নীতিতে বহু মৃত্যুর অভিযোগে জেলে গিয়েছিলেন ক্ষমতা হারানো প্রেসিডেন্ট হোসনি মোবারক । আদালতের রায়ে বেকসুর খালাস হন সম্প্রতি। এবার জেল থেকে মুক্তি পেলেন।  শুক্রবার মুবারকের আইনজীবী জানান, দক্ষিণ কায়রোর সামরিক হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন তার মক্কেল। বিবিসি এ খবর জানিয়েছে। ৮৮ বছরের হোসনি মোবারক থাকবেন তাঁর বাড়িতে।

২০১১ সালের জানুয়ারিতে শুরু হয়েছিল হোসনি মুবারক বিরোধী গণঅভ্যুত্থান। ১৮ দিনের সেই অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত হন হোসনি মোবারক। অভ্যুত্থান দমন করতে তার নির্দেশে সেনাবাহিনীর গুলিতে ২৩৯ জন বিক্ষোভকারীর মৃত্যু হয়েছিল। এর জেরে ২০১২ সালে নিম্ন আদালত হোসনি মোবারককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা দিয়েছিল। রায়ের বিরুদ্ধে দুবার উচ্চ আদালতে আপিল করেন হোসনি মোবারক। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রাক্তন একনায়ক শাসককে বেকসুর খালাস করেছে মিশরের সর্বোচ্চ আপিল আদালত। ১৯৮১ সালে মিশরের ক্ষমতায় বসেছিলেন হোসনি মোবারক। হোসনি মোবারকের পরবর্তী সময়েও উত্তাল হয়েছে মিশর। স্বল্প সময়ের জন্য ক্ষমতায় এসেছিলেন মহম্মদ মুরসি। তাকে সরিয়ে ক্ষমতা দখল করেন আদলি মনসুর। এরপরে আবার ক্ষমতার পরিবর্তন হয় মিশরে।  প্রেসিডেন্ট হন দেশটির সেনা প্রধান আব্দেল ফাতহ আল সিসি। সূত্র: কলকাতা টুয়েন্টিফোর।

 



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / আ/ম

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা