চিত্রনায়িকা শাকিবা

চিত্রনায়িকা শাকিবা বিনতে আলী। এখন পর্যন্ত তার অভিনীত প্রায় ৪০টির বেশি ছবি মুক্তি পেয়েছে। কিন্তু প্রায় ৭ বছর ধরে চলচ্চিত্র থেকে দূরে রয়েছেন একসময়ের সুপারহিট চিত্রনায়িকা।

শনিবার সকালে মুঠোফোনে কথা হলো শাকিবার সঙ্গে। আলাপে তিনি বলেন, ‘চলচ্চিত্রে আমার অভিষেক হয় চিত্রপরিচালক মমতাজুর রহমান আকবরের মাধ্যমে। তার পরিচালনায় ‘জীবনের গ্যারান্টি নাই’ ছবিতে প্রথম অভিনয় করি। আমিন খানের বিপরীতে আমার প্রথম ছবিই সুপারহিট হয়। এরপর অনেকগুলো ছবিতে কাজ করেছি। যেমন- ‘ভন্ড নেতা’, ‘বাঁচাও দেশ’, ‘মাঝির ছেলে ব্যারিস্টার’, ‘রূপান্তর, দুর্ধষ’, ‘বস্তির ছেলে কোটিপতি’, ‘এক জবান’, ‘মাটির ঠিকানা’ ইত্যাদি।

চলচ্চিত্র থেকে কিছুটা নিজেকে গুটিয়ে নিয়ে এই ফাঁকে শিক্ষাজীবনের ইতি টানেন শাকিবা। তিনি রাজধানীর ইন্ডিপেনডেন্ড ইউনির্ভাসিটি অব বাংলাদেশ (আইইউবি) থেকে বিবিএ শেষ করে এমবিএও সম্পন্ন করেন দুই মাস আগে। বর্তমানে অবসরে বাসায় দিন কাটছে তার।

শাকিবা বলেন, ‘যাই করিনা কেন লেখাপড়াটা ঠিক রেখেছি। আমার বিবিএ-এমবিএ দুটোর রেজাল্ট খুবই ভালো। এখন বারিধারার ডিওএইচএসে নিজেদের বাড়িতেই আছি। নিজেদের কিছু ব্যবসা আছে সেগুলো দেখি।’

চলচ্চিত্র থেকে দূরে থাকলেও এই অঙ্গনের মানুষের সঙ্গে শাকিবার এখনও দারুণ সখ্য রয়েছে বলে জানান। তিনি বললেন, ‘দশ বছর আগেও দিন-রাতের বেশির ভাগ সময়ই কাটতো চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট মানুষদের সাথে। এটি ছিল আমার দ্বিতীয় ঘর। তাই আমি চলচ্চিত্র থেকে দূরে থাকলেও কম-বেশি অনেকের সঙ্গে আমার যোগাযোগ রয়েছে। তাছাড়া ফিল্মের টুকটাক খোঁজও রাখি।’

শাকিবা বলেন, ‘সর্বশেষ বন্ধুদের সঙ্গে হলে গিয়ে ‘আয়নাবাজি’ দেখেছি। দারুণ লেগেছে ছবিটা। আর ঈদের ছবিগুলো বেশ ভালো হয়েছে। তবে যৌথ প্রযোজনায় ছবি নিয়ে আমার একটা বিষয়ই বলার আছে- সেটা হচ্ছে নিয়মনীতি মেনে ছবি বানানো উচিত এবং দেশের সংস্কৃতি মাথায় রেখে নির্মাণ করা উচিত।’

চলচ্চিত্র ছাড়াও শাকিবা বিজ্ঞাপন নির্মাতা আফজাল হোসেনের নির্দেশনায় কয়েকটি বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন। আলাপকালে শাকিবা জানান চলচ্চিত্র থেকে নিজেকে আড়াল করার বিষয়টি। বললেন, ‘আমি যখন চলচ্চিত্রে কাজ করতাম তখন ভালো ছবি নির্মাণ হলেও কিছু অসাধু লোক নিজেদের স্বার্থের জন্য ইন্ডাস্ট্রিতে অশ্লীলতা প্রবেশ করায়। ভালোভাবে ছবিতে কাজ করলেও মুক্তির পর দেখা যেত ছবির ভিতর বিভিন্ন কাটপিস জুড়ে দেয়া হয়েছে। এটা আমাকে একেবারেই হতাশ করেছিলো। পরিবার নিয়ে হলে গিয়ে ছবি দেখা যেত না। তাই দূরে সরে গিয়েছিলাম।’

তিনি আরো বলেন, ‘এখন সেই অবস্থা থেকে আমাদের ফিল্ম বেরিয়ে এসেছে। এখন বেশ ভালো ছবি নির্মাণ হচ্ছে। আগামীতে আরো হবে বলে আশা করছি।’

চলচ্চিত্রে আবার নিয়মিত হওয়া প্রসঙ্গ তুলতেই শাকিবা বলেন, ‘আমি আবারো চলচ্চিত্রে ফিরবো কিনা জানি না। তবে মনে হয়, আর ফেরা হবে না।’



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / সারোয়ার সোহাগ

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা