rumana

এ সময়ের জনপ্রিয় মডেল-উপস্থাপকদের মধ্যে অন্যতম রুমানা আফরোজ। ২০০৩ সাল থেকে একটানা তিনি উপস্থাপনা করেই চলেছেন। দীর্ঘদিন উপস্থাপনা করার অভিজ্ঞতা ও অন্যান্য বিষয় নিয়ে  কথা বলেছেন তিনি।

এক যুগের বেশি সময় ধরে উপস্থাপনা করছেন কখনো ক্লান্তিবোধ করেছেন কি?

রুমানা আফরোজ : একদম না। উপস্থাপনা আমার একমাত্র ধ্যানজ্ঞান। সুন্দরভাবে কোনো অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করলে দর্শকদের ভালোবাসা পাওয়ার পাশাপাশি আস্থা অর্জন করা যায়। একবার আস্থা তৈরি হলে উপস্থাপকের যেকোনো তথ্য দর্শক সহজে বিশ্বাস করেন। এটা একজন উপস্থাপকের জন্য অন্য রকম আনন্দ। তাই কখনো ক্লান্তি আসেনি। ভালোবেসে উপস্থাপনা করে চলেছি।

আপনি তো ক্যামেরার পেছনেও কাজ করছেন। এ বিষয়ে কিছু বলুন

রুমানা আফরোজ : উপস্থাপনা করার পাশাপাশি এটিএন বাংলায় প্রোগ্রাম ম্যানেজার হিসেবে আমি কর্মরত আছি। ক্যামেরার পেছনে কাজের অভিজ্ঞতাও অসাধারণ। বাইরে যখন আমরা শুটিং করতে যাই, তখন দর্শকের অনেক সাড়া পাই। কীভাবে একটা অনুষ্ঠান তৈরি হয়, এটা নিয়ে দর্শকের আগ্রহের কমতি নেই।

আপনাকে বিজ্ঞাপনের মডেল হিসেবে দেখা গেলেও কখনো অভিনেত্রী হিসেবে দেখা যায়নি। এখনকার অনেক উপস্থাপক অভিনয় করছেন। আপনি কি অভিনয়ের প্রস্তাব পাননি?

রুমানা আফরোজ : মডেলিং শখের বশে করেছি। আরএফএলের পণ্যের বিজ্ঞাপনে মডেল হয়ে ভালো সাড়া পেয়েছিলাম। মোনালিসা কেয়া সোপের বিজ্ঞাপন করে বেশ আলোচিত হয়েছিলেন। মোনালিসা দেশের বাইরে যাওয়ার পর আমাকে বহুবার এই বিজ্ঞাপনের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু আমি রাজি হইনি। আর অভিনয় কখনো আমাকে টানেনি। আমার কাছে মনে হয়, অভিনয় সহজ ব্যাপার নয়। নাটকে তো প্রতিনিয়ত অভিনয় করার প্রস্তাব পাই, এমনকি চলচ্চিত্রেও অভিনয়ের প্রস্তাব অনেকেই দিয়েছিলেন। প্রস্তাব ফিরিয়ে দেওয়ায় অনেকেই আমাকে ভুল বুঝেছেন।

শুধু টিভি অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করছেন। স্টেজ অনুষ্ঠান উপস্থাপনা না করার কোনো বিশেষ কারণ আছে কি?

রুমানা আফরোজ : ভালো ভালো স্টেজ অনুষ্ঠান দেশের বাইরে বেশি হয়। তাই করা হয় না। কারণ, আমি পরিবারকে ছেড়ে বাইরে অনুষ্ঠান করতে যেতে চাই না। ঢাকায় কিছু স্টেজ শো আমি করেছি। তবে সেটা বহু আগের কথা।

 কিন্তু আপনি তো দেশের বাইরে প্রচুর ঘুরতে যান?

রুমানা আফরোজ : এটা সত্যি। তবে দেশের বাইরে আমি পরিবারসহ যাই। আর একটা কারণ আছে তা হলো, দেশের বাইরে আমার শপিং করতে ভীষণ ভালো লাগে। আমি শপিং পাগল মেয়ে, এটা আমার কাছের মানুষ সবাই জানেন। স্টেজ শো করতে গেলে কিন্তু ঘোরাফেরা কিংবা শপিং করার সময় থাকে না। মাথায় শুধু অনুষ্ঠানের চিন্তাই রাখতে হয়।

আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী?

রুমানা আফরোজ : যত দিন বেঁচে থাকব, ভালো কিছু অনুষ্ঠান নির্মাণ করব। এ ছাড়া উপস্থাপনা চালিয়ে যাব। ক্যামেরার পেছনে কাজ করলেও কখনো নাট্য কিংবা চলচ্চিত্র নির্মাতা হওয়ার ইচ্ছে আমার নেই।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / আ/ম

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা