Lisa

ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তার সমর্থকরা মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকালীন সময়ে মুসলিম ও ইসলামকে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য হুমকি মনে করতেন। যে কারণে ট্রাম্প শিবির বরাবরই মুসলিম বিদ্বেষী প্রচারণায় সরব ছিল।যুক্তরাষ্ট্রে নির্বাচনকালীন সময়ে দেশটিতে মুসলিমরা বিশেষ করে মুসলমান নারীরা হয়রানির শিকার হয়। যা এখনও অব্যাহত রয়েছে। দেশটিতে মুসলিমদের প্রবেশেও রয়েছে কড়াকড়ি।ট্রাম্প শিবিরের মুসলিমভীতি ও ইসলাম বিদ্বেষী প্রচারণা সত্বেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে দিন দিন ইসলামের প্রচার ও প্রসার বেড়েই চলেছে। তাদের প্রচারনায় ইসলামের প্রতি আগ্রহী হয়ে ওঠেন লিসা এ শাঙ্কলিন নামে এক নারী।

ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে ট্রাম্পের তিরস্কারমূলক ও আক্রমনাত্মক ভাষা প্রয়োগে অনেক অমুসলিম ইসলাম ও কুরআনের ব্যাপারে আগ্রহী হয়ে ওঠে।

যারাই ইসলাম এবং কুরআন নিয়ে গবেষণা করেছেন বা জানতে চেয়েছেন তারাই পেয়েছেন সঠিক পথে দিশা। তাদেরই একজন লিসা এ শাঙ্কলিন। যিনি ট্রাম্পের মুসলিম বিরোধী প্রচারণায় ইসলাম ও কুরআন নিয়ে গবেষণা করতে গিয়ে ইসলাম গ্রহণ করেছেন।

সাবেক সাইকোথেরাপিস্ট লিসা শানকিন শার্লট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে মনোবিজ্ঞানের ওজর গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেন।

তার একটি স্ট্যাটাস ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়।

Lisa shangkin

তিনি তার ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ট্রাম্পের বাড়াবাড়ি ও তির্যক মন্তব্যের কারণে একবছর আগেই লিসা শানকিন ইসলাম গ্রহণ করেছেন। চলতি বছর (২০১৭) ঠিক সেই দিন তিনি হিজাব পরিধান করেছেন, যে দিন ডোনাল্ড ট্রাম্প মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন।

লিসা শানকিন বলেন, ‘আমি আগেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম যে ২০১৭ সালের ২০ জানুয়ারি যে দিন ট্রাম্প শপথ নিবেন; সেই দিন থেকে আমার প্রকাশ্যে হিজাব পরা শুরু হবে।’



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / টি/কে

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা