eryunbvbx8.jpg

ভাই সেতু পাড় হলাম ছয় ঘন্টায়! জানাচ্ছিলেন উত্তরবঙ্গ থেকে ঢাকাগামী কাঁচামাল পরিবহনকারী ট্রাক চালক আমজাদ হোসেন। তার মত একই ভোগান্তিতে পড়েছেন এই মহাসড়ক দিয়ে চলাচলকারী কয়েক হাজার পরিবহনের চালক ও যাত্রী সাধারণ। বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব হতে টাঙ্গাইলের করটিয়া পর্যন্ত প্রায় ৩০ কিলোমিটার দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।
 
হঠাৎ কেন এই যানজট
বঙ্গবন্ধু সেতুতে টোল আদায়ে নতুন নিয়োগ পাওয়া প্রতিষ্ঠান কম্পিউটার নেটওয়ার্ক সিস্টেম (সিএনএস) দায়িত্ব পাওয়ার পরই পূর্বঘোষণা ছাড়াই সেতুতে টোল আদায়ের জন্য প্রতিষ্ঠানটির নিজস্ব সিস্টেম স্থাপনের জন্য রবিবার দুপুরে কাজ শুরু করে। সংস্কার কাজের জন্য হঠাৎ করে টোলপ্লাজার ছয়টি বুথের মধ্যে পাঁচটি বুথ বন্ধ থাকায় যানজটের সূত্রপাত হয়। পরে তা মধ্যে রাত থেকে তীব্র আকার ধারণ করে। সোমবার সকাল ছয়টা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু-ঢাকা মহাসড়কে পরিবহনের চাপ বাড়তে থাকায় টাঙ্গাইলের করটিয়া এবং সেতুর পশ্চিমে সিরাজগঞ্জের নলকা পর্যন্ত প্রায় ৩০ কিলোমিটার যানজটে আটকা পড়ে বিভিন্ন ধরনের পরিবহন।
 
মহাসড়কে চলাচলকারী ট্রাক চালকরা অভিযোগ করে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু সেতুতে পূর্ব ঘোষণা না দিয়ে নতুন সিস্টেমের নামে সেতু পার হতে বাড়তি টাকা আদায় করছে কর্তৃপক্ষ। বাড়তি টাকা আদায়ে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে চালকদের বাক্বিতণ্ডার কারণে সময় ক্ষেপন হচ্ছে। যে কারনে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।
 
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মহাসড়কে দায়িত্বপ্রাপ্ত হাইওয়ে পুলিশের একাধিক কর্মকর্তা জানান, বঙ্গবন্ধু সেতু কর্তৃপক্ষ আমাদের সমন্বয় না করে হঠাৎ এমন সিদ্ধান্ত নেয়ায় বিরূপ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।
 
বঙ্গবন্ধু সেতু টোল আদায়ে নতুন নিয়োগ পাওয়া কম্পিউটার নেটওয়ার্ক সিস্টেম (সিএনএস) প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী পরিচালক মি. জিয়াউর বলেন, ‘নতুন সিস্টেমটি বিআরটিএ সার্ভারের সঙ্গে সংযুক্ত। প্রত্যেকটি গাড়ির ব্লু-বুক অনুযায়ী পরিবহনের আকার পাওয়া যাচ্ছে। সে অনুযায়ী টোল আদায় করা হচ্ছে।’
 
বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের (বিবিএ) বঙ্গবন্ধু সেতুর সহকারি প্রকৌশলী মো. ওয়াশিম আলী জানান, বিবিএ থেকে নতুন সিস্টেম চালুর জন্য চিঠি ইস্যূ করা হয়েছে। সে অনুযায়ী নতুন নিয়োগ পাওয়া প্রতিষ্ঠান সিএনএস তাদের কাজ শুরু করেছে।
 
বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আছাবুর রহমান জানান, বঙ্গবন্ধু সেতুতে টোল আদায়ে হঠাৎ করে সিস্টেম পরিবর্তন করার ফলে মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। সোমবার সকাল ৬টার পর থেকে যানজটের ভয়াবহ আকার ধারন করেছে। এখন পর্যন্ত যানজট অব্যাহত আছে। মহাসড়কে পরিবহনের চাপ থাকায় কখন নাগাদ যানজট নিরসন তা সঠিক বলা যাচ্ছে না।


উত্তরানিউজ২৪ডটকম / আ/ম

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা