Kuhili

ক্যাপ্টেন কোহলির সেঞ্চুরি ‘ডাবল’ হতেই পারে—এমনটা আর নিছকই কল্পনা নয়, অধিনায়কত্বের মাত্র ৩৩ টেস্ট ইনিংসে গতকাল ছয় নম্বর দ্বিশতক করে সেটি বুঝিয়েও দিয়েছেন। তাই বলে একদল মুখোশ পরে ফিল্ডিং করছে—ক্রিকেট ইতিহাসেই এমন দৃশ্য প্রথম দেখা গেল ফিরোজ শাহ কোটলায়।

দিল্লির বায়ুদূষণ থেকে নিজেদের শ্বাসযন্ত্রকে নিরাপদ রাখতে লাঞ্চের পর শ্রীলঙ্কানদের এই ‘মাস্কিং’। অধিনায়ক হিসেবে বিরাট কোহলির সর্বাধিক ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়ার দিনেও যে দৃশ্য অদৃশ্য রেকর্ড হয়ে থাকবে ক্রিকেট ইতিহাসে।

 ম্যাচের কেচেগণ্ডুষ হলো, ৬ উইকেটে ৫৩৭ রান তুলে ভারত প্রথম ইনিংস ঘোষণার পর দ্বিতীয় দিন শেষে সফরকারীরা থমকে ৩ উইকেটে ১৩১ রানে। মোহাম্মদ শামি আর ইশান্ত শর্মা মিলে ১৪ রানে শ্রীলঙ্কার দুই ওপেনারকে তুলে নিলেও আপাতত ফলোঅন এড়ানোর লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ ও দীনেশ চান্ডিমাল। তবে নিজের মাঠে দুর্দান্ত রেকর্ড গড়ার আনন্দ আর নিজের শহরের বাতাসে ভিনদেশিদের শ্বাসকষ্টের বেদনাও কি ফুটে ওঠেনি কোহলির অভিব্যক্তিতে? মধ্যাহ্ন বিরতির পর সতর্কতামূলক মুখোশ পরা থেকে চান্ডিমালকে বিরত থাকার কম চেষ্টা করেননি কোহলি। কিন্তু ম্যাচ রেফারি ডেভিড বুন স্থানীয় চিকিৎসকের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনার পর চান্ডিমালদের ইচ্ছার প্রতি সায় দিয়েছেন। দিল্লির আবহাওয়া অধিদপ্তরও স্বীকার করেছে যে, কোটলার আশপাশের বায়ুদূষণ স্বাস্থ্যঝুঁকির কারণ হতে পারে। ততক্ষণে মাঠেও এর প্রতিফলন ঘটে গেছে। শ্রীলঙ্কার পেসার সুরঙ্গা লাকমাল মাঠ ছেড়ে যেতে বাধ্য হন অসুস্থবোধ করায়।

নতুন বলে তাঁর সঙ্গী লাহিরু গামাগেকেও নিয়মিত শুশ্রূষা নিতে হয়েছে দলীয় ফিজিওর। তাতে ফিল্ডার সংখ্যায় ঘাটতি পড়তে পারে ভেবে সফরকারী দলের ট্রেনার নিক লী সাদা পোশাকে তৈরি হয়েছিলেন ফিল্ডিংয়ে নামার জন্য।

 অবশ্য অতটা বিব্রতকর অবস্থায় নিজের শহরকে পড়তে দেননি বিরাট কোহলি, তাৎক্ষণিক ইনিংস ঘোষণা করে। অবশ্য দুই দফায় (১৭ ও ৫ মিনিট) ‘দূষণ বিরতি’ বাদ দিলে কোটলা নেচেছে বিরাট-বীরত্বে। ৪ উইকেটে ৩৭১ রান নিয়ে দিন শুরু করা ভারত এদিন প্রথম ধাক্কা খায় মধ্যাহ্ন বিরতির এক বল আগে। রোহিত শর্মা (৬৫) আউট হলেও ততক্ষণে পঞ্চম উইকেট থেকে ১৩৫ রান যোগ হয়ে গেছে ভারতের ইনিংসে। বলার অপেক্ষা রাখে না, ডাবল সেঞ্চুরিও করা হয়ে গেছে কোহলির। ব্রায়ান লারাকে (৫) পেছনে ফেলে অধিনায়ক হিসেবে সর্বাধিক ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ডটা এখন কোহলির একার। তবে টানা দুটি ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ডে অবশ্য আরো পাঁচজনের সঙ্গে ব্র্যাকেটবন্দি আছেন। চলমান সিরিজের তিন টেস্টেই সেঞ্চুরির ‘ক্ষতিপূরণ’ও দিতে হচ্ছে কোহলিকে, শ্বাসকষ্টে না ভুগলেও আঙুল আর পিঠের শুশ্রূষা নিতে হয়েছে তাঁকেও। স্টারটিভি



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / টি/কে

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা