i phone

স্মার্টফোনের ধারণাই বদলে গিয়েছিল ২০০৭ সালে যখন প্রথম আইফোন বাজারে ছেড়েছিল অ্যাপল। আইফোনের দশম বর্ষপূর্তিতে অ্যাপল কি চমক নিয়ে আসে তা দেখতেই অ্যাপল ইভেন্টের দিকে চোখ রেখেছিলেন অনেকেই। ঠিক যেমনটা ধারণা করা হচ্ছিল আইফোন এইট ও এইট প্লাসের সাথে নতুন সব ফিচারে ঠাসা আইফোন টেন এর ঘোষণা এসেছে গতকাল।

আইফোন টেন এর আকর্ষণীয় সব ফিচারের মধ্যে অন্যতম হলো এর ফেস ডিটেকশন সিস্টেম 'ফেস আইডি'। কিন্তু এই ফেস আইডি দিয়ে আইফোন আনলক করতে গিয়ে মঞ্চেই বিব্রতকর অবস্থায় পড়তে হয়েছে অ্যাপলের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ফিল শিলারকে। তবে প্রথম দফায় আইফোন আনলক করতে না পারলেও দ্বিতীয়বার আর তাকে হতাশ হতে হয়নি।

আইফোন সেভেন বাজারে ছাড়ার পর থেকেই দশম বর্ষপূর্তির বিশেষ আইফোন নিয়ে প্রযুক্তি আগ্রহীদের মধ্যে আলোচনা শুরু হয়ে যায়। এ নিয়ে গুজবও কম ছড়ায়নি। প্রত্যাশা মতই প্রথমে আইফোন এইট ও এইট প্লাসের ঘোষণা করেন অ্যাপলের প্রথম নির্বাহী কর্মকর্তা টিম কুক। তবে আইফোন টেন-কে ঘিরেই ছিল যত আগ্রহ।

টিম কুক নতুন আইফোন সম্পর্কে বলেন, আইফোনের প্রথম সংস্করণের চেয়ে প্রযুক্তিগত উন্নয়নের ক্ষেত্রে বড় একধাপ এগিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটল আইফোন টেন এর মাধ্যমে।

এজ টু এজ এমোলেড ডিসপ্লে, তারবিহীন চার্জিং সুবিধা ও নতুন ধরনের ক্যামেরার সাথে আইফোন টেন প্রসেসর হিসেবে থাকছে বায়োনিক চিপ ১১। তবে এতে পুরনো হোম বাটনের সাথে টাচ আইডিও বাদ দেওয়া হয়েছে। এর বদলে যুক্ত করা হয়েছে নতুন প্রযুক্তি ফেস আইডি।

 অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বিশেষ ধরনের ইনফ্রারেড সেন্সরের মাধ্যমে আইফোন টেন তার ব্যবহারকারীকে ঠিকঠাক চিনে নেবে। চুলের স্টাইলে পরিবর্তন, মুখে দাড়ি বা চশমা পরলেও ফেস আইডিতে কোনো সমস্যা হবে না। ফোনের দিকে এক নজর তাকালেই হলো। মুহূর্তেই আনলক হয়ে যাবে আইফোন টেন।

কিন্তু অনন্য এই প্রযুক্তি দেখাতে গিয়েই সবার সামনে বিপাকে পড়তে হলো অ্যাপলকে। গ্রাহকদেরও ফেস আইডি নিয়ে ঝামেলায় পড়তে হয় কি না তা দেখতে অবশ্য আরো কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে। আগামী নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে বাজারে আসার পরই বোঝা যাবে ফেস আইডি কতটা কার্যকর।

প্রযুক্তিগত দিক থেকে চমক থাকলেও নতুন আইফোন সস্তা হবে না। ৯৯৯ ডলার থেকে শুরু হবে এর দাম।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / টি/কে

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা