cUebiiIyantho--pic.jpg

ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন অফ কনজারভেশন অফ নেচার জীবটিকে অতি বিপন্ন তকমা দিয়েছে। তার দেখা মেলাই ভার হয়ে দাঁড়িয়েছে। অথচ স্‌ফিস নামে সেই অতিকায় বিশেষ প্রজাতির হাঙর ধরা পড়ল মৎস্যজীবীদের জালে।  

ভারতের মহারাষ্ট্রের সিন্ধুদুর্গ এলাকায় সেই অদ্ভুত দর্শন হাঙরকে চাক্ষুষ করতে চোখে পড়ার মত ভিড় জমল সমুদ্রের ধারে। নাক বিশাল। আর তাতে কাঁটা কাঁটা করা। অনেকটা বড় দাড়ার করাতের মত। এই বিশেষ নাসিকার কারণেই এর নাম স্‌ফিস।  

মৎস্যজীবীদের দাবি, মাছ ধরার সময় কোনওভাবে সেটি জলের তলায় জালে জড়িয়ে যায়। সেখান থেকে বার হতে গিয়ে হাঙরের নাক যায় জালে পেঁচিয়ে। আর তাতেই একসময়ে দমবন্ধ হয়ে মৃত্যু হয় মাছটির। ২০ ফুট লম্বা ও ৭০০ কেজি ওজনের মাছটিকে জলের ওপরে তুলতে ৪-৫ জন মৎস্যজীবী হিমসিম খেয়ে যান।  

যদিও কয়েকজন পরিবেশবিদের দাবি, এই ধরণের হাঙর মৎস্যজীবীদের তোলার মাছই খেয়ে সাফ করে দেয়। ফলে মৎস্যজীবীরাও তাঁদের মাছ বাঁচাতে হাঙরগুলোকে মেরে দেন। এদিকে সিন্ধুদুর্গ এলাকায় হাঙরটিকে তোলার পর সেখানে আরও একটি খবর কান পাতলে শোনা যাচ্ছে। মৃত স্‌ফিসটি নাকি ইতিমধ্যে বিক্রিও হয়ে গেছে। দাম উঠেছে দেড় লক্ষ টাকা!

- ইন্টারনেট



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / আ/ম

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা