vw&U&I‡I‡o_pic.jpg

মাইক ব্যবহার করা হয় সাধারণত মানুষকে বিভিন্ন সচেতনতামূলক বার্তা পাঠানো ও জরুরি গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন ঘোষণা দেয়ার কাজে। কিন্তু তুরস্কে এবার ঘটলো ব্যতিক্রম ঘটনা। সেখানে শোনা গেল পর্নো ছবির আওয়াজ। যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম ইন্ডিপেনডেন্টের খবরে বলা হয়, বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে দেশটির কাস্টামুনু প্রদেশে এ ঘটনা ঘটে। অবশ্য তুর্কি পুলিশের দাবি, হ্যাক করে এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এদিকে পর্নো ছবির সেই শব্দ অনেকে রেকর্ড করে ছেড়ে দেয় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে। ঘটনা জানাজানির পর তা তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার রাত একটায় নগরীর মানুষ যখন ঘুমিয়ে পড়েছে ঠিক তখন নগর ভবনের মাইকের লাউড স্পিকারে এক অদ্ভুত শব্দ শোনা গেল। তুরস্কের কাস্টামুনু এবং এর পাশের কুজিকেন্ট শহরের আশপাশের এলাকায় শোনা গেল, নিষিদ্ধ পর্নো ছবি চলছে। সঙ্গে সঙ্গে অনেকেই তা রেকর্ড করে নেন। ছেড়ে দেন ইউটিউব, ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগের সব মাধ্যমে।

সমালোচনার মুখে পড়ে নগরবাসীর কাছে ক্ষমা চেয়েছে মুনু শহরের মেয়র তাহসিন বাবাস। তিনি ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। পুলিশ এ ঘটনার নজরদারি করছে। পুলিশের মুখপাত্র ডেইলি মেইলকে বলেছেন, একটি এলাকায় মাইকে ওই শব্দ শোনা গেছে। কেউ চাইলে ফ্রিকোয়েন্সি ব্যবহার করে তারা যা চান তাই সম্প্রচার করতে পারবেন। আমরা এ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছি। পুলিশ বলছে, পুরো ঘটনা জানতে আরও অপেক্ষা করতে হবে। আমরা স্বচ্ছভাবে ঘটনার তদন্ত করছি।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / আ/ম

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা