amirat

সংযুক্ত আরব আমিরাত বিলাসে, আভিজাত্যে অতুলনীয় একটি দেশ। বিশ্ব মঞ্চে আরব দুনিয়ার এই দেশটি যেন এক স্বপ্নপুরী। পশ্চিম এশিয়ার ওমান উপসাগর ও পারস্য উপসাগর ঘেরা অফুরান তেলের খনি, প্রাচুর্য ও বৈভবের সংমিশ্রণে তৈরি এই দেশটি যেন স্বপ্নালোক।

চলুন জেনে নিই সেই স্বপ্নালোক সম্পর্কে কিছু অজানা তথ্য:

১. আরব দুনিয়ার এই দেশ ৭টি আমিরশাহিকে সংযুক্ত করে বিশ্বের মানচিত্রে আত্মপ্রকাশ করেছে। দেশটির রাজধানী আবুধাবি হল বৃহত্তম আমিরশাহি। গোটা দেশের আয়তনের ৮৭ শতাংশ রাজধানীর দখলে। ক্ষুদ্রতম হল আজমান, যার আয়তন মাত্র ২৫৯ কি.মি.।

২. আবুধাবি যদিও বৃহত্তম তবুও জনসংখ্যায় এগিয়ে দুবাই আমিরশাহি। জনপ্রিয়তায় দুবাই হল বিশ্বের জনপ্রিয় ভ্রমণস্থান। যেখানে বিশ্বের ভ্রমণ পিপাসু মানুষ প্রায়ই আসেন।

৩. সংযুক্ত আরব আমিরাতে ভিনদেশি মানুষের সংখ্যাই বেশি। এখানে আরব দুনিয়ার বাসিন্দা সংখ্যায় খুবই নগন্য। মোট জনসংখ্যার ২৭.১৫ শতাংশ ভারতীয়, ১২.৫৩ শতাংশ পাকিস্তানি, ১১.৩২ শতাংশ আমিরাতি, ৭.৩১ বাংলাদেশি, ৩.১৩ শ্রীলঙ্কান ও অন্যান্য জাতির লোক ৩৮.৫৬ শতাংশ।

৪. সংযুক্ত আরব আমিরাতে আছে গোল্ড এটিএম। সেই এটিএম-এ টাকা ঢুকালেই মিলবে দামি গয়না ও সোনার ঘড়ির মতো জিনিস।

৫.আমিরাতেই বিশ্বের উচ্চতম ভবন বুর্জ খলিফার অবস্থিত। বুর্জ খলিফার ৮০ তলার উপরে যারা বসবাস করেন তাদের রমজান মাসের রমজানের সময় অতিরিক্ত ২ থেকে ৩ মিনিট অপেক্ষা করতে হয় ইফতারের জন্য। কারণ হলো- উঁচুতে তারা সূর্যকে বেশ কিছুক্ষণ দেখতে পান।

৬. আবুধাবির মাসদার শহরে প্রাইভেট গাড়ি নিষিদ্ধ। কারণ মাসদার শহরটি পুরোপুরি সৌরশক্তি ও অন্যান্য বিকল্প শক্তিতে নির্ভরশীল। পরিবহন ব্যবস্থা হলো এখানে ইলেকট্রিক গাড়ি, পরিশুদ্ধশক্তির গাড়ি এবং ব্যক্তিগত পড কারের উপরই টিকে রয়েছে। দূষণের কোনো নামগন্ধ নেইে এই শহরে।



উত্তরানিউজ২৪ডটকম / টি/কে

recommend to friends
  • gplus

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে আমরা